img

নওগাঁ সদর মডেল থানা কর্তৃক করোন ভাইরাসে অপপ্রচারকারীকে দ্রুত গ্রেফাতার।

পুলিশ সুপার জনাব প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম স্যারের নির্দেশনায় অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ সোহরাওয়ার্দী হোসেন এর নেতৃত্বে নওগাঁ সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব মুঃ ফয়সাল বিন আহসান, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মোঃ তাজমিলুর রহমান ফোর্সের সহায়তায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করিয়া ইং ০৬/০৪/২০২০ তারিখ ভোর ০৫.২০ ঘটিকার সময় Facebook এ অপপ্রচার আসামী মোঃ জাকিরুল ইসলাম @ জাকির (৪২), পিতা-মোঃ ইয়াকুব আলী, সাং-জিয়ানন্দপাড়া, পোঃ-রনসিবাড়ী, থানা-বাগমারা, জেলা-রাজশাহী, বর্তমান সাং-উকিলপাড়া (উত্তরাস্কুলের সামনে জনৈক নাজিম উদ্দিন এর ভাড়াবাসা), থানা ও জেলা-নওগাঁ করা হয়। তাহার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের Facebook এর মাধ্যমে Zakir Hossain Hossain আইডি হইতে তাহার সহযোগী অজ্ঞাতনামা আসামী ইং ০৫/০৪/২০২০ তারিখ রাত্রী ২২.৫১ ঘটিকার সময় ধৃত আসামীর বর্তমান ঠিকানার বসত বাড়ি হইতে ইচ্ছাকৃত ভাবে একে অপরের প্ররোচনা ও সহায়তায় “করোনা ভাইরাস” এর সুযোগ নিয়ে রাষ্ট্রের ভাবমুর্ত্তি বা সুনাম ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্যে বিভ্রান্তি ছড়াইবার, অপপ্রচার ও জনসাধারণের মধ্যে ভীতি ও আতংক সৃষ্টি করিয়া আইন শৃংখলার অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্যে “খাওয়ার অভাবে মা-ছেলে মেয়েরা গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করল” একটি ভিডিও এবং যাহাতে “লক ডাউন এর পরে খাওয়ার অভাবে মা-মেয়ে ছেলে পরিবারসহ আত্মহত্যা করল” লেখা সম্বলিত ভিডিও উদ্দেশ্যে প্রণোদিত ভাবে মিথ্যা তথ্যের ভিডিও সৃষ্টি করে পোস্ট করতঃ ধৃত আসামীর Facebook এ ইউজার আইডি Zakir Hossain Hossain হইতে (লিংক https://m.facebook.com/story.php?storyfbid=217915326216207&id=100039932220770) এর ভিডিওটি সেয়ার করিয়া জনসাধারণের মধ্যে অস্থিরতা, বিশৃংখলা সৃষ্টি সহ আইন শৃংখলার অবনতি ঘটার উপক্রম করেছে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করিয়া আসামীকে দ্রুত আটক করা হয়। উক্ত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করায় তাহার Facebook এ ব্যবহৃত মোবাইল চেক দেখা যায়, ধৃত আসামীর উক্ত আইডিতে “খাওয়ার অভাবে মা-ছেলে মেয়েরা গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করল” একটি ভিডিও এবং যাহাতে “লক ডাউন এর পরে খাওয়ার অভাবে মা-মেয়ে ছেলে পরিবারসহ আত্মহত্যা করল” লেখা সম্বলিত ভিডিও পোস্ট এবং সেয়ার করিয়াছে।







সর্বশেষ সংবাদ
DIG Homepage